• অন্তঃসত্ত্বা নারীর পেটে পুলিশের লাথি!

    টঙ্গীর ব্যাংক মাঠ বস্তির এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর পেটে পুলিশ লাথি দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার গভীর রাতে দাবি করা টাকা না পেয়ে বস্তিতে ঢুকে ৩০ বছর বয়সী গৃহবধূ জহুরার পেটে বুট জুতা পায়ে সজোরে উপর্যুপরি লাথি মারে পুলিশ। এতে তার রক্তক্ষরণ শুরু হলে স্থানীয়রা তাকে টঙ্গী হাসপাতাল নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার দুপুরে জহুরাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। মঙ্গবার সন্ধ্যার পর জহুরার মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী টঙ্গীতে ভাঙচুর শুরু করে। টঙ্গীর ব্যাংক মাঠ বস্তি এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। সূত্র জানিয়েছে, সোমবার গভীর রাতে বস্তিতে ঢুকে পুলিশ ৩০ বছর বয়সী গৃহবধূ জহুরাকে মাদক ও দেহ ব্যবসায়ী হিসাবে আখ্যায়িত করে অর্থ দাবি করে। আশপাশের বস্তির লোকদের কাছ থেকে ধার-কর্য করে জহুরা পুলিশের হাতে পাঁচ হাজার টাকা দিলে পুলিশ তার ওপর চড়াও হয়। এলাকাবাসী জানান, ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশের এসআই বিপ্লব চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা জহুরার তলপেটে উপর্যুপরি লাথি মারেন ও মারধর করেন। এতে সে গুরুতর আহত হয় এবং তার প্রচুর রক্তক্ষরণ শুরু হয়। থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) বিপ্লব জহুরাকে তলপেটে লাথি মারার কথা অস্বীকার করে বলেন, জহুরা একজন মাদক ও দেহ ব্যবসায়ী। আটকের জন্য গিয়ে জহুরাকে ইয়াবা সেবন করা অবস্থায় পাই।

    Comments

    comments

    No Comments

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    two × 1 =