• ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপে ‘থার্ড বয়’ বেলজিয়াম

    বিশ্বকাপে স্বপ্নের সফর শেষ করল বেলজিয়াম৷ গ্রুপ লিগে প্রথম সাক্ষাতে ১-০ ইংল্যান্ডকে হারিয়েছিল বেলজিয়াম। বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থানের লড়াইয়েও শেষ হাসি হাসল বেলজিয়াম। শনিবার সেন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামে ১৯৬৬ বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের ২-০ হারিয়ে বিশ্বকাপে প্রথমবার প্রথম তিনে শেষ করল বেলজিয়াম৷ তৃতীয় হয়ে বিশ্বকাপ থেকে অন্তত ২৪ মিলিয়ন ডলারের প্রাইজমানি নিয়ে যাওয়া নিশ্চিত হলো দলটির। চতুর্থ হয়ে ইংল্যান্ড পাবে ২২ মিলিয়ন ডলার।

    নিয়মরক্ষার ম্যাচে এদিন ৪ মিনিটে থোমাস মুনিয়েরের গোলে এগিয়ে যায় বেলজিয়াম। নাসের চ্যাডলির যোগান দেওয়া বলে লক্ষ্যভেদ করেন এ ডিফেন্ডার। এটি ছিল বিশ্বকাপে বেলজিয়ামের দ্রুততম গোল। ১২ মিনিটে বেলজিয়ামকে ব্যবধান দ্বিগুণ করতে দেননি জর্ডান পিকফোর্ড। রোমেলু লুকাকুর পাস দেওয়া বলে শট নিয়েছিলেন কেভিন ডি ব্রুইন। তার শট প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে ইংলিশ গোলরক্ষকের বাধায় লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

    এরপর ইংল্যান্ড ম্যাচে ফেরার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছিল। কিন্তু বারবার সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি। প্রথমার্ধে ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে গিয়েছিল বেলজিয়াম।

    ৭০ মিনিটে ইংল্যান্ডের নিশ্চিত গোল হতে দেননি অ্যাল্ডারওয়েইরেল্ড। ডায়ারের তুলে দেওয়া বল বেলজিয়ান গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়াকে পরাস্ত করে জালে ঢোকার মুখে গোললাইনে দুর্দান্ত ব্লক করেন এই ডিফেন্ডার। ৭৩তম মিনিটে আবারও সুযোগ পায় ইংল্যান্ড। কিন্তু এবারও ব্যর্থ হয় তারা।

    এরপর ম্যাচের ৮২তম মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনার কাছ থেকে পাস পেয়ে ইংল্যান্ডের ডিফেন্ডারদের কাটিয়ে বল জালে পৌঁছে দেন এডেন হ্যাজার্ড। ম্যাচের বাকি সময়ে কোনো গোল না হওয়ায় ২-০ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বেলজিয়াম। এই জয় আসরে তৃতীয় হয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে বেলজিয়ামকে। আর ইংল্যান্ডকে আবারো হতাশ হতে হয়েছে।

    Comments

    comments

    No Comments

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    three × two =