• চুরির টাকায় ফ্যাশন

    ৪১ বছর বয়সী অসুস্থ এক ব্যক্তির সেবিকা হিসেবে কাজ করছিলেন লরা নিকোলস (২৬)। সেই সুবাদে ওই ব্যক্তির ব্যাংক অ্যাকাউন্টের গোপন নম্বর জানা ছিল তাঁর। পরে বিভিন্ন সময় হাতিয়েছেন প্রায় সাড়ে ১২ লাখ টাকা (১০ হাজার পাউন্ড)। সেই অর্থ ব্যয় করেছেন ফ্যাশনে। কিনেছেন নিজের পছন্দের পোশাক ও জুতো।
    গতকাল শুক্রবার ডেইলি মেইলে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়, যুক্তরাজ্যের পেমব্রুকশায়ারের হাউটনে ঘটনাটি ঘটে। শেষ পর্যন্ত তা আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে। গত বৃহস্পতিবার মামলার শুনানি হয়েছে। আগামী মাসে রায় ঘোষণা করা হতে পারে।
    আদালতে শুনানি থেকে জানা যায়, নিজের ঘরে ২৪ ঘণ্টাই ওই অসুস্থ ব্যক্তি অন্যের কাছ থেকে সেবা নেন। এমনকি নিজের ব্যাংক হিসেবের গোপন নম্বরও তিনি স্মরণ রাখতে অক্ষম। সেবা প্রদানকারী একটি কোম্পানির দলনেতা হিসেবে নিকোলস ওই অসুস্থ ব্যক্তিকে একসময় সেবা দিতেন। এই সুযোগে এক বছরের বেশি সময় ধরে তিনি ওই ভুক্তভোগীর ব্যাংক হিসাব থেকে প্রায় ১০ হাজার পাউন্ড চুরি করেছেন। চুরির অর্থ দিয়ে পোশাক, জুতা, হাতব্যাগ কিনেছেন। চুরির বিষয়টি স্বীকারও করেছেন তিনি।
    আইনজীবী এলি মরগান আদালতে দাবি করেন, নিকোলসের বাবার বাসায় তল্লাশি চালিয়ে পোশাক, জুতো ও হাতব্যাগ পেয়েছে পুলিশ। নিকোলসের দাবি, তিনি নিজেই এগুলো কিনেছেন। তবে তিনি স্বীকার করেছেন, অর্থগুলো চুরির।

    Comments

    comments

    No Comments

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    seven + 10 =